(তার কচি পাপড়ি গুলো আজ আরও লাল,

গাঢ় লাল হয়ে ঝুলে থাকে বেড়িতে…)

 

কলিটি তখনও ফুল হয়ে ওঠেনি,

বললে, যতন করে রেখে দেবে।
আমিও বন্ধু ভেবে তোমায়,
সরল বিশ্বাসে, রাখতে দিলাম কলিটি
ন’টি মাস।
তখনিই প্রথম করলে গ্রাস-
গাছটিই কেড়ে নিলে,
সেই থেকে শুরু।
তোমার রক্তচোষা রুপ,
আমার শিরাগুলো চুষে খায়, আজও,
চারপাশে মোর হিংস্র বেড়ি পড়িয়ে
আমার ফুল কেড়ে
আমার ফল খেয়ে
তুমি উল্লাস কর?
যে কলিটি তখনও ফুল হয়ে ওঠেনি,
যে গোলাপটি তখনও লাল হয়ে ফুটেনি,
তার কচি পাপড়ি গুলো আজ আরও লাল,
গাঢ় লাল হয়ে ঝুলে থাকে বেড়িতে…
ভেবেছ? তুমি শীত হবে?
ষোল কোটি পাতা কেড়ে নেবে?
কিন্তু বন্ধু, যেওনা ভুলে
শীত শেষ, বসন্ত এল বলে
নিয়ে নতুন প্রাণের বারতা ।
আমার শিকড়, তোমার শিকল গলে বেরিয়ে
আমার কচি পাতা, প্রশ্বাসে টেনে নিয়ে তোমার প্রাণ
নি:শ্বাসে দেবে-
স্থির, প্রশান্ত, চির সবুজ স্বাধীনতা।

Advertisements