কোষ সৃষ্টির ‘মুক্তমনা’ পদ্ধতি

গাছ থেকে একা একা কাঠ হয়ে নৌকা হয়ে যাওয়ার উদাহরণ অথবা লোহার স্তুপের মধ্যে দিয়ে টর্ণেডো যাওয়ার ফলে বোয়িং বিমান হয়ে যাওয়ার উদাহরণ দেয়া হলেই মুক্ত(!)মনারা বলতে শুরু করেন যে এই উদাহরণ জীবিত কোষের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়।

লক্ষ্যণীয়, এখানে তারা ভাষার খেলা খেলছে। জীবিত কোষ বলতে তারা তাহলে কী বুঝায়? তাহলে কি তারা কোষের মধ্যে কোন আত্মার অস্তিত্ব স্বীকার করছে? অথচ এ ব্যাপারটি তারা কখনই স্বীকার করবে না। তারা বলবে কোষ একটি মলিকিউলার ফ্যাক্টরি আর প্রাণ হল কেমিকাল প্রসেস। এটাই হল ভাষার খেলা কিংবা পিছলানো স্বভাব, যা-ই বলেন। অর্থাৎ একদিকে বলছে বোয়িং ফ্যালাসি অন্যদিকে জীবিত কোষ বলতে তারা কী বুঝায় সে সম্পর্কে একটা ধাঁধার মধ্যে রাখার চেষ্টা করছে।

অথচ, যদি কোষকে একটি মলিকিওলার ফ্যাক্টরি বিবেচনা করা হয় সেক্ষেত্রেতো সমস্যাটি আরও প্রকট হয়ে পড়ছে। কারণ, একটি ব্যাকটেরিয়া কোষকেও যদি উদাহরণ হিসেবে নিই, কোষের মধ্যে আছে DNA যা কোষের এনজাইম সমুহের Blue Print ধারণ করে। আছে RNA, যা DNA থেকে তথ্য উদ্ধার করে তাকে নিয়ে রাইবোজমের মাধ্যমে এনজাইম সংশ্লেষ করে। আছে অক্সিডেটিভ ফসফরাইলেশন(সাইটোক্রোম সিস্টেম) যা কেমিকেল প্রসেস বজায় রাখার শক্তি সরবরাহ করে ATP তৈরীর মাধ্যমে। এখানে আমি এই যে বললাম DNA করে, RNA করে, সাইটোক্রোম করে, তাহলে কি এদের বুদ্ধিমত্তা আছে? না, বরং এই পুরো প্রসেসটাই অটোমেটেড। আর DNA হল এমন একটা জায়গা যেখানে এনজাইম এর তথ্য প্রোগ্রামিং করে রাখা হয়েছে তথা পরোক্ষভাবে কেমিকেল প্রসেসগুলোকে প্রোগ্রাম করে রাখা হয়েছে। তথাপি তাদের মতে এই কোষ তথা হাইলি প্রোগ্রামড মলিকিউলার মেশিন নাকি প্রিবায়োটিক স্যুপ-এ বাই চান্স তৈরী হয়ে গেছে। আজব ব্যাপার?

তাদের যুক্তিটা অনেকটা এরকম যে, গাছ থেকে বাই চান্স নৌকা তৈরী হওয়া সম্ভব না কারণ এটা জড়; তবে সিলিকন গুড়া থেকে বাই চান্স মোবাইল তৈরী হওয়া সম্ভব কারণ এটা জীবিত। যদিও মোবাইলের analogy দিয়ে কোষকে একটু বেশী সরলিকৃত করে ফেললাম। তবুও উদাহরণটা দিলাম এই জন্য যে মোবাইলে একটা হার্ডওয়ার আছে এবং এটার মধ্যে কিছু প্রোগ্রামিংও করা আছে। মোবাইলে কমান্ড দিলে যেমন সে ফলো করে (অর্থাৎ এক অর্থে জীবিত ধরে নিলাম!) ঠিক তেমনি ব্যাকটেরিয়া খাদ্য পেলে তাকে সুনির্দিষ্ট কেমিকেল প্রসেসে মেটাবলাইজ করে শক্তি সংগ্রহ করে।

অর্থাৎ নৌকা বানানোর জন্য বুদ্ধিমান নির্মাতা লাগলেও, কোষের মত একটি অটোমেটেড সফটওয়্যার-বেজড মলিকিওলার মেশিন তৈরী হওয়ার জন্য দরকার ‘মেশিনের মৌলিক উপাদান, সময় এবং চান্স’!!

এবার, আপনিই বলুন এদের লজিক(?) দেখে হাসব না কাঁদব?

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s